২৮ মে ২০২২ ০১:৫৮ অপরাহ্ন

২৮ মে ২০২২ ০১:৫৮ অপরাহ্ন

নন্দিত সিলেট

এপ্রিল ২৪, ২০২২
৭:০৬ অপরাহ্ন


ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ৮ বছরের কারাদণ্ড


ভোলার বোরহানউদ্দিনে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানো মামলায় বাপন দাস নামে একজনকে ৮ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনাল। রোববার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এবং জেলা ও দায়রা জজ গোলাম ফারুক এ রায় দেন।

ওই আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউর ইসতাক আহমেদ রুবেল জানান, বাপন দাসকে ৩টি ধারায় কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সব ধারার সাজা চলবে একই সঙ্গে। ৩৪ ধারায় ৮ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৩ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ২ বছরের কারাদণ্ড, ২৮/১ ধারায় ২ বছরের কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড এবং ৩১/১ ধারায় ৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

২০১৯ সালের ১৮ অক্টোবর বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ওই দিনই বিপ্লব চন্দ্র তার ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে বলে ভোলার বোরহানউদ্দিন থানায় একটি জিডি করেন। এ ঘটনায় পুলিশ বিপ্লব চন্দ্র, ইমন, রাফসান নামে ৩ জনকে গ্রেফতার করে। তবে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ওই ৩ জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

অপরদিকে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বাপন দাস নামে একজন হ্যাকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে ১৬৪ ধারায় জবাববন্দি প্রদান করে। আদালতে তার বিরুদ্ধে ২০২১ সালের পহেলা আগস্ট অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

এর আগে ২০১৯ সালের ২০ অক্টোবর বোরহানউদ্দিন ঈদগাহ মাঠে তৌহিদী জনতা বিক্ষোভ করেন ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার প্রতিবাদে। ওই সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। গুলিতে ৪ জন নিহত হন। ওই ঘটনায় বোরহানউদ্দিন থানায় আরও দুটি মামলা দায়ের হয়; যা এখনো আদালতে বিচারাধীন।